এবার লবণ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড

এবার লবণ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড

ঢাকা: সিলেটে সোমবার সারা দিন ছিল পেঁয়াজ নিয়ে হুলস্থুল। আবার সন্ধ্যা হতেই শুরু হয় লবণ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড। সোমবার সিলেট নগর ও সিলেট জেলার বিভিন্ন উপজেলায় সন্ধ্যা থেকে লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে এমন খবরে ক্রেতারা হুমড়ি খেয় পড়েন জেলা ও মহানগরসহ উপজেলাগুলোর ভোগ্যপণ্যের দোকানে। বাড়তি চাপে নিমিষেই ফুরিয়ে যায় বিভিন্ন দোকানের লবণ। আবার অনেক ব্যবসায়ী বেশি দামে বিক্রির জন্য লবণ মজুদ করে রাখেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। অপরদিকে সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় এ নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সিলেটের জকিগঞ্জ থানার ওসি আব্দুন নাসের জানান, সন্ধ্যা থেকে কোনো এক পক্ষ বাজারে গুজব ছড়িয়েছে যে লবণের কেজি ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা। সত্যি বলতে কী লবণের দাম বৃদ্ধির খবর পুরোটাই গুজব। কেউ উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এই গুজব ছড়াতে পারে।

এদিকে সিলেট নগরীরর অনেক ব্যবসায়ীরাও জানিয়েছেন, লবণের চাহিদামাফিক সরবরাহ আছে। শিগগিরই দাম বাড়ার শঙ্কা নেই। তবে ব্যবসায়ীরা এমনটি দাবি করলেও সোমবার রাতেই অনেক দোকানে বাড়তি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপরদিকে গুজবকে কেন্দ্র করে এই হুলস্থুলের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার সন্ধ্যায় জনগণকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানান সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন।

নিজের ফেসবুকে পুলিশ সুপার লিখেছেন- ‘প্রিয় সিলেটবাসী, বাজারে নিত্য-প্রয়োজনীয় সামগ্রীর পর্যাপ্ত সরবরাহ রয়েছে। কোনো নিত্য-প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বাড়তে পারে এমন গুজবে কান না দেয়ার জন্য সকলকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।’ এদিকে, এ গুজব মিরপুরও বিরাজ করছে। আজ (১৯ নভেম্বর) দুপুরে দেখা যায় সবাই লবণ নিয়ে আলোচনা করছে। এবং কেউ কেউ ৫কেজি করে কিনে রাখতেছ। মিরপুর লবনের কেজি এক লাফে ১২০টাকা হয়েছে।