‘কোথাও কেউ নেই’

‘কোথাও কেউ নেই’

বিনোদন প্রতিবেদক: এই প্রজন্মের শ্রোতাপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ইউসুফ আহমেদ খান ও তাসনিম আনিকা বাংলাদেশের বরেণ্য কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ’র জন্মদিন উপলক্ষ্যে একটি গান গেয়েছেন। গানের শিরোনাম ‘কোথাও কেউ নেই’। গানটি হুমায়ূন আহমেদ’র ২৯টি বইয়ের নাম নিয়ে লেখা। গানটি লিখেছেন নীল মাহবুব এবং সুর সঙ্গীত করেছেন শরীফ সুমন ও অদিত। এরইমধ্যে গেলো ১০ নভেম্বর রাজধানীর অ্যালিফ্যান্ট রোডের একটি কফি শপে ‘সাউ-হ্যাকার’র ইউটিউব চ্যানেলে গানটি প্রকাশিতহয়। প্রকাশনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওস্তাদ ইয়াকুব আলী খান, হুমায়ূন আহমেদ’র ছোট ভাই কবি আহসান হাবিব’সহ গানের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাই’সহ আরো অনেক আমন্ত্রিত অতিথি। গানটি গেয়েছেন ইউসুফ ও আনিকা এবং শাকিব শাহতিমের নির্দেশনায় তারা দু’জন গানে মডেল হিসেবে থাকার পাশাপাশি আরো ছিলেন উপস্থাপিকা নাহিদ আফরোজ সুমী।

হমায়ূন আহমেদ’র ছোট ভাই কবি আহসান হাবিব বলেন, ‘গানটির সাথে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আমার আন্তরিক ধন্যবাদ। বইয়ের নাম দিয়েও যে এতো সুন্দর করে গীতিকবিতার মধ্যদিয়ে সুন্দর গান হতে পারে, সেটা কোথাও কেউ নেই প্রমাণ করেছে। যারা গানটি করেছে তাদের জন্য শুভ কামনা রইলো।’ ওস্তাদ ইয়াকুব আলী বলেন, ‘যারা গানটির সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাই আমার সন্তানের মতো। তাদের এই কাজকে অনুপ্রাণিত করতেই এখানে আসা। আমার বিশ্বাস আগামী দিনে তারা আরো এমন দৃষ্টান্তমূলক কাজ করবে।’

ইউসুফ আহমেদ খান বলেন, ‘এটা আমাদের সবার প্রচেষ্টায় হুমায়ূন স্যারের প্রতি তার জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলী। আমরা সবাই যার যার অবস্থান থেকে চেষ্টা করেছি গানটি ভালো করতে। কতোটুকু করতে পেরেছি দর্শক শ্রোতা তা ভালো বলতে পারবেন।’ আনিকা বলেন, ‘এতো সুন্দর একটি কাজের সাথে থাকতে পেরে ভীষণ আনন্দিত আমি। আমার মনে হচ্ছে আমি একটি ইতিহাসের সাথে যুক্ত হয়ে গেলাম।’ পুরো অনুষ্ঠানটি যার উপস্থাপনায় নান্দনিক হয়ে উঠে তিনি এই গানের মডেল সুমী। সুমীর উপস্থাপনার বেশ প্রশংসা করছিলেন সবাই। কারণ তার প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় মুগ্ধ ছিলেন সবাই। সুমী বলেন, ‘কেমন করে যেন একটি সুন্দর গানের সাথে গায়িকা না হয়েও যুক্ত হয়ে গেলাম। আমরা একটি টিম হয়ে কাজটি করেছি। শ্রোতা দর্শকের ভালো লাগলেই আমাদের সবার কষ্ট সার্থক হবে।’