বিক্ষোভে উত্তাল চিলি

সোনার বাংলা ডেস্ক: বৈতন বৈষম্য দূরীকরণ, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানোসহ অর্থনৈতিক নীতি সংস্কারের দাবিতে টানা ৬ষ্ঠ দিনের মতো বিক্ষোভে উত্তাল চিলি। জরুরি অবস্থার মধ্যে বুধবার রাজধানী সান্তিয়াগোসহ কয়েকটি শহরে ধ্বংসজ্ঞ চালায় বিক্ষোভকারীরা। এতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা অনেকেটাই থমকে গেছে। চলমান সহিংস বিক্ষোভে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ জনে। সঙ্কটের কথা স্বীকার করে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা।

কারফিউ উপেক্ষা করে বুধবারও রাজধানী সান্তিয়াগোর পথে নামেন সরকারবিরোধী বিক্ষোভকারীরা। তাদের প্রতিহত করতে বিপুল সংখ্যক সেনা সদস্য অবস্থান নেয়। নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেঙে আন্দোলনকারীরা সড়ক অবরোধ করলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাঁস নিক্ষেপ ও লাঠিচার্জ করে নিরাপত্তা বাহিনী। এক পর্যায়ে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর চালায় বিক্ষোভকারীরা।

চিলিতে আন্দোলন দানা বাঁধার পেছনেও রয়েছে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি। জ্বালানী তেলের দাম বাড়ানো ও অর্থনৈতিক সংস্কারের পর বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে সমস্যা সমধানে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা। দক্ষিণ আমেরিকার অন্যতম ধনী দেশ চিলিতে ধনী-দরিদ্রের বৈষম্য প্রকট। দেশটির সাধারণ মানুষ বলছেন, দীর্ঘদিনের নিপীড়নের বহিঃপ্রকাশ এ আন্দোলন।