মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রূপম

সোনার বাংলা ডেস্ক: আসিফ জামান রুপম। ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় উপ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিষয়ক সম্পাদক। দায়িত্বগ্রহনের পর নতুন নতুন ইউনিট সৃষ্টি করে হাজার হাজার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের মূলধারার ছাত্রলীগ করার সুযোগ সৃষ্টি করে দেন তিনি। তার উদ্যোগ শ্রমেই আজকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জাম সোহাগ , সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগ গোলাম সরোয়ার কবির, সাবেক সভাপতি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের আনিসুর রহমান সরকার আনিস সহ অনেক নেতাই তার সাক্ষি।

২০০৮/২০০৯ সালে যখন হিজবুত তাহিরি সহ অন্যান্য জঙ্গি সংগঠন গুলো যখন মাথাচাড়া দিয়ে উঠছিলো বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের তখন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের প্রয়োজনীয়তা বুঝতে পেরে কার্যক্রম শুরু করেন। বিনিময়ে সিন্ডিকেটের রোষানলে পড়ে সব থেকে বেশি আলোচনায় থাকলেও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভাইটাল পোস্ট থেকে বঞ্চিত হন রূপম । হেফাজতের তান্ডব রুখে দেওয়া, ৫ই জানুয়ারী নির্বাচন পরবর্তী বিএনপির আগুন সন্ত্রাস প্রতিহত করতে মাঠে ছিলো অসংখ্য নেতা কর্মীদের নিয়ে।

২০০৪ সালের শেখ হাসিনার সম্মেলনে গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদ মোস্তাক আহমেদ সেন্টুর আপন বোনের ছেলে রূপম। পারিবারিকভাবে আওয়ামী লীগের সন্তান রূপমের রাজনীতির হাতেখড়ি নিজ বাবার হাত ধরেই। ২০১০ সালের দিকে রুপম নিজের বাবার কিনে দেয়া ব্যাক্তিগত মার্ক-২ প্রাইভেটকার নিয়ে আওয়ামী লীগের পার্টি অফিসে আসতে দেখা গেলেও এখন তাকে মটর সাইকেলে সন্তষ্ট থাকতে হয়।

যদিও অন্য নেতারা গুলিস্থান পার্টি অফিসে লোকাল বাসে চড়ে আসা মানুষ গুলোর অনেকেই আজ গাড়ি নিয়ে চলে। বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ নামের একটি ছাত্র সংগঠন নিয়ে কাজ করছেন রূপম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের রাজনীতি ছাত্রদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে কাজ করে এই সংগঠনটি। আর এই সংগঠনের মধ্যেমেই হাজার হাজার কোমল হৃদয়ে জাতির পিতার আদর্শের বীজ বপনের চেষ্টা করছেন তিনি।