ব্যতিক্রমী কার্যক্রমে নাভারণে মানবতার দেয়াল

ব্যতিক্রমী কার্যক্রমে নাভারণে মানবতার দেয়াল

সিরাজুল ইসলাম (রাজ): ‘আপনার অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে যান, আপনার প্রয়োজনীয় জিনিস নিয়ে যান’ এই স্লোগানে উদ্দীপ্ত হয়ে যশোরের নাভারণে অনুষ্ঠিত হয়েছে মানবতার দেয়াল’র ব্যাতিক্রমী কার্যক্রম। প্রচন্ড হাড় কাপানো শীতে অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে দাড়ানোর প্রত্যয় নিয়ে ‘নাভারণ কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড’ এর উদ্যোগে কার্যক্রমটি পরিচালিত হচ্ছে। ‘মানবতার দেয়াল’ একটি স্বেচ্ছাসেবী মহৎ উদ্যোগ, যা শীতার্ত মানুষের সেবায় নিয়োজিত।

তারই ধারাবাহিকতায় নতুন বছরের প্রথম দিন বুধবার (০১ জানুয়ারি) অসহায়, দুস্থ ও শীতার্তদের জন্য শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এসময় ফজিলাতুন্নেছা সরকারী মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক জনাব আব্দুল হক সাহেব, বিশিষ্ট সমাজসেবী আলহাজ্ব এনামুল হক সাহেব সহ সুধীজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

মানবতার দেয়াল-নাভারণ এর আহবায়ক তাসনীমুর রহমান বলেন, ‘আমাদের উদ্যোগটি ব্যাতিক্রমী এজন্যই যে, আমরা শুধু পোষাকের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকছি না। আমরা পুরাতন বই সংগ্রহ করে তা ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে বিতরন করছি। আমরা মানবতার দেয়ালের ব্যানারে ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্পিং এর মাধ্যমে অসহায় মানুষের চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করছি।’

মানবতার দেয়ালের সভাপতি আজমল ফাহিম আবির বলেন, ‘আমরা সমাজের সর্বস্তরের মানুষের সাহায্য নিয়ে অসহায় দের পাশে দাড়াতে চাই।’ ২০১৮ সালে যাত্রা শুরু করে মানবতার দেয়াল-নাভারণ এলাকায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তরুণ ও যুবকদের মধ্যে আর্তমাণবতার কল্যানে কাজ করার মানসিকতা তৈরি হয়েছে। আমরা ধীরে ধীরে আমাদের উদ্যেশ্যের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের লক্ষ হচ্ছে তারুন্যের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সামাজিক ব্যবস্থার উন্নতি করা।’

যাত্রা শুরু থেকে এ পর্যন্ত মানবতার দেয়াল কয়েকশ শীতার্ত মানুষকে শীত বস্ত্র প্রদান করেছে। দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীদেরকে গাইড-বই সরবরাহের মাধ্যমে তাদের লেখাপড়ায় সাহায্য করেছে। পুরাতন স্কুল ড্রেস, স্কুল ব্যাগ, জুতো ইত্যাদি সংগ্রহ করে তা বিতরনের মাধ্যমে অগনিত শিক্ষার্থীর স্কুলে যাওয়া নিশ্চিত করেছে। এর পাশাপাশি মানবতার দেয়াল এর একঝাক তরুণের উদ্যোগে গরীব শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার শিক্ষার ব্যবস্থা শীঘ্রই করা হবে।

আহবায়ক তাসনীমুর রহমান বলেন, ‘আমরা প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে টেকনলজি সম্পর্কিত নৈতিক জ্ঞান বিতরনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি৷ মানবতার দেয়াল-নাভারণের উদ্যোগে এলাকায় দুঃস্থ ও অসহায়দের তালিকা তৈরির কাজ চলমান। এ ব্যাপারে শার্শা উপজেলা পরিষদ এবং নাভারণ কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড ‘মানবতার দেয়াল’ সর্বাত্বক সহযোগীতা করছে।’